অসম আদিত্য - দেশ-জাতিৰ অতন্দ্ৰ প্ৰহৰী
শেহতীয়া খবৰ
পাকিস্তানৰ বিখ্যাত আনাৰকলি বজাৰ অঞ্চলত বোমা বিস্ফোৰণ-পদ্মশ্ৰী উদ্ধাৱ কুমাৰ ভৰালীৰ আত্মসমৰ্পণ-গণৰাজ্য দিৱস সমাগত, খাদী বৰ্ডৰ একাংশ কৰ্মচাৰী ব্যস্ত হৈ পৰিছে ৰাষ্ট্ৰীয় পতাকা সাজি উলিওৱাত-অসম চৰকাৰে কোভিড আক্ৰান্তৰ বাবে সংশোধিত গাইড লাইন জাৰি কৰিছে-অসম চৰকাৰে কোভিড আক্ৰান্তৰ বাবে সংশোধিত গাইড লাইন জাৰি কৰিছে-চীনে কৃত্ৰিম সূৰ্যৰ পিছত এতিয়া নকল চন্দ্ৰ (Artificial Moon) নিৰ্মাণ কৰিছে-বুজন সংখ্যক লোকক এতিয়া বিচাৰি ভেকচিন দিয়াটো হৈ পৰিছে স্বাস্থ্য বিভাগৰ কাৰণে ডাঙৰ প্ৰত্যাহ্বান-বুজন সংখ্যক লোকক এতিয়া বিচাৰি ভেকচিন দিয়াটো হৈ পৰিছে স্বাস্থ্য বিভাগৰ কাৰণে ডাঙৰ প্ৰত্যাহ্বান-দেশত কোৰোণাত আক্ৰান্তৰ সংখ্যা দিনক দিনে বৃদ্ধি পাইছে-নামনিৰ ৰে’ল যোগাযোগৰ ক্ষেত্ৰত আজি এক ঐতিহাসিক দিন

শনিবারই প্রকাশিত হয়েছে কেন্দ্রের ২০২০-২১ সালের সুশাসন তালিকা

0

শনিবারই প্রকাশিত হয়েছে কেন্দ্রের ২০২০-২১ সালের সুশাসন তালিকা।  কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশাসনের প্রশ্নে রাজ্যগুলি কে কোথায় আছে সেই রিপোর্ট প্রকাশ করেন। সেই তালিকা অনুযায়ী শীর্ষে রয়েছে গুজরাট।  সূচকে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র এবং গোয়াও। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির মধ্যে শীর্ষে রয়েছে দিল্লি। তবে তালিকার সবথেকে নীচে পশ্চিমবঙ্গ। সুশাসনের নিরিখে বিহার, ঝাড়খণ্ডের মতো রাজ্যও পশ্চিমবঙ্গের থেকে ভাল ফল করেছে বলে ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে। 

সুশাসনের তালিকায় গুজরাটের সূচক ১২ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে। গোয়ায় ২০১৯-২০ সালে সূচকের তুলনায় এই বছর প্রায় ২৪.৭ শতাংশ বেড়েছে সুশাসনের সূচক। উত্তর প্রদেশের পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৯ সালের হিসেবের তুলনায় প্রায় ৯ শতাংশ বেড়েছে সূচক। ২০ টির মতো রাজ্য ২০২১ সালে তাদের তাদের কম্পোজিট ‘গুড গভর্নেন্স ইনডেক্স’ (GGI) স্কোর গতবারের তুলনায় উন্নত করেছে। উত্তর প্রদেশ ৮.৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিতে গিয়ে শাহ বলেন, মোদী সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে যা রাজনৈতিক ক্ষতির মুখেও জনগণের জন্য ভাল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন যে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে একটিও দুর্নীতির অভিযোগ নেই কারণ এই সরকার পরিস্কার এবং স্বচ্ছ প্রশাসন। সুশাসন তালিকাকে তিনি তারই প্রমাণ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

মূলত কৃষি, শিল্প, জনস্বাস্থ্য, জনপরিকাঠামো, আর্থিক পরিচালনব্যবস্থায় ভাল ফল করায় দশম স্থান থেকে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বিজেপি-শাসিত গোয়া। গুজরাত শিক্ষা, আইনব্যবস্থা, সামাজিক ন্যায়, জনপরিকাঠামো ক্ষেত্রে ভাল ফল করায় ১২.৩ শতাংশ সূচকের বৃদ্ধিতে প্রথম স্থান পেয়েছে। অন্য দিক পিছিয়ে থাকা রাজ্যের মধ্যে আরও ৬.৬ শতাংশ পিছিয়ে একেবারে শেষে স্থান পেয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। 

কেবলমাত্র পরিকাঠামো ও জনপরিষেবা ক্ষেত্রে মমতার রাজ্য ভাল ফল করেছে বলে রিপোর্টে জানানো হয়েছে। রিপোর্টে এও দেখা গিয়েছে ঝাড়খণ্ডে গতবারের তুলনায় ১২.৬ শতাংশ বেড়েছে সূচক। ঝাড়খণ্ড মোট সাতটি সেক্টরে ভাল কাজ করেছে। রাজস্থানের সূচক বেড়েছে ১.৭ শতাংশ বেড়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.