অসম আদিত্য - দেশ-জাতিৰ অতন্দ্ৰ প্ৰহৰী
শেহতীয়া খবৰ
পাকিস্তানৰ বিখ্যাত আনাৰকলি বজাৰ অঞ্চলত বোমা বিস্ফোৰণ-পদ্মশ্ৰী উদ্ধাৱ কুমাৰ ভৰালীৰ আত্মসমৰ্পণ-গণৰাজ্য দিৱস সমাগত, খাদী বৰ্ডৰ একাংশ কৰ্মচাৰী ব্যস্ত হৈ পৰিছে ৰাষ্ট্ৰীয় পতাকা সাজি উলিওৱাত-অসম চৰকাৰে কোভিড আক্ৰান্তৰ বাবে সংশোধিত গাইড লাইন জাৰি কৰিছে-অসম চৰকাৰে কোভিড আক্ৰান্তৰ বাবে সংশোধিত গাইড লাইন জাৰি কৰিছে-চীনে কৃত্ৰিম সূৰ্যৰ পিছত এতিয়া নকল চন্দ্ৰ (Artificial Moon) নিৰ্মাণ কৰিছে-বুজন সংখ্যক লোকক এতিয়া বিচাৰি ভেকচিন দিয়াটো হৈ পৰিছে স্বাস্থ্য বিভাগৰ কাৰণে ডাঙৰ প্ৰত্যাহ্বান-বুজন সংখ্যক লোকক এতিয়া বিচাৰি ভেকচিন দিয়াটো হৈ পৰিছে স্বাস্থ্য বিভাগৰ কাৰণে ডাঙৰ প্ৰত্যাহ্বান-দেশত কোৰোণাত আক্ৰান্তৰ সংখ্যা দিনক দিনে বৃদ্ধি পাইছে-নামনিৰ ৰে’ল যোগাযোগৰ ক্ষেত্ৰত আজি এক ঐতিহাসিক দিন

বিধানসভা নির্বাচনের আগে এবার মনিপুর ও ত্রিপুরা সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

0

নতুন বছরে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে ঘন ঘন ভোটমুখি রাজ্যে সফর করছেন প্রধানমন্ত্রী। সরকারি প্রকল্পের শিলান্যাস কিংবা উদ্বোধন করতে ছুটছেন। উত্তরপ্রদেশ, উত্তরা খন্ডে গিয়েছেন। নতুন বছরে যাচ্ছেন মনিপুর। যাবেন ত্রিপুরা।  বিধানসভা নির্বাচনের আগে এবার মনিপুর ও ত্রিপুরা সফরে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ৪জানুয়ারি ওই দুই রাজ্যে যাবেন প্রধানমন্ত্রী। জানাগেছে, সেদিন প্রথমে ইম্ফলে কিছু উন্নয়নমূলক প্রকল্পের শিলান্যাস ও উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।তারপর আগরতলায় মহারাজা বীর বিক্রম বিমানবন্দরের নতুন টার্মিনাল বিল্ডিংয়ের উদ্বোধন করবেন।এরপর স্বামী বিবেকানন্দ ময়দানে নতুন টার্মিনাল বিল্ডিংয়ের দ্বার উদঘাটন করবেন প্রধানমন্ত্রী। একইসঙ্গে ত্রিপুরায় একশোটি বিদ্যালয় স্কুল চালু করার জন্য ‘মিশন ১০০’ প্রকল্পের সূচনা করবেন।

ত্রিপুরায় মুখ্যমন্ত্রী ত্রিপুরা গ্রাম সমৃদ্ধি যোজনার শুভ আরম্ভ করবেন প্রধানমন্ত্রী।গতকালই উত্তরাখণ্ড গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাজ্যে ২৩টি প্রকল্পের সূচনা ও শিলান্যাস করেন। প্রকল্পগুলির মধ্য়ে অন্যতম এইমসের শাখা তৈরি হবে উধম সিং নগরে। তারও শিলান্যাস হয়েছে এদিন। পাশাপাশি হালদোয়ানিতে একটি জমায়েতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোদী বলেন, সার্বিকভাবে পরিকাঠামোর উন্নয়নের জন্য ২ হাজার কোটি টাকার স্কিম করা হয়েছে। তার মধ্যে জলপ্রকল্প, রাস্তা, নিকাশি, পার্কিং, পথবাতি সহ নানা উন্নয়নমূলক কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে। আগামী দশবছরের জন্য উত্তরাখন্ডের উন্নয়নের রোড ম্যাপ তুলে ধরেন তিনি।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটে জিততে মরিয়া বিজেপি। প্রায় প্রত্যেক সপ্তাহেই নানা উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের সূচনা বা শিলান্যাস করতে উত্তর প্রদেশ সহ অন্য রাজ্যে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেখানে গিয়ে বারবার প্রধানমন্ত্রীর মুখে, ‘ডবল ইঞ্জিন’ সরকারের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে। দেশজুড়ে কোভিডের সংক্রমণ যখন তরতর করে বাড়ছে। তখন ভোটমুখী রাজ্যে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি প্রকল্প উদ্বোধন, শিলান্যাস ও জনসভায় কোনও বিরাম নেই। একের পর শিল্যনাস করছেন।

সরকারি অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার ফাঁকে জনসভা ও করছেন।  মাস্ক ছাড়াই সাধারন মানুষ ভিড় করছেন। কোভিড বিধি পালন হচ্ছেনা। গত মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী গিয়েছিলেন কানপুরে। আইআইটি-র সমাবর্তন অনুষ্ঠান। কানপুর মেট্রোর উদ্বোধন। প্রধানমন্ত্রীর পাশে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। মেট্রো সফরে মোদীর আর এক পাশে ছিলেন কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন মন্ত্রী হরদীপ সিংহ পুরী। দু’জনের মুখেই মাস্ক। ব্যতিক্রম খোদ প্রধানমন্ত্রী

Leave A Reply

Your email address will not be published.