অসম আদিত্য - দেশ-জাতিৰ অতন্দ্ৰ প্ৰহৰী
শেহতীয়া খবৰ
Mamata Banerjee: আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে রাজ্যে খুলে দেওয়া হবে স্কুল-টি–২০ বিশ্বকাপৰ হাইভল্টেজ খেলত পাকিস্তানৰ হাতত ধৰাশায়ী হোৱা দেখা গ'ল ভাৰতীয় দলক-শিৱসাগৰৰ ঐতিহাসিক শিৱদৌলত ভিৰ কৰিছে নেতা-পালিনেতাই-ভাৰত আৰু পাকিস্তানৰ মাজত অনুষ্ঠিত হ'বলগীয়া টি-২০ বিশ্বকাপ ২০২১ দেওবাৰে (IND vs PAK T20 World Cup 2021) অনুষ্ঠিত হ'ব-ৰে'ল পথৰ বৈদ্যুতিকীকৰণ কৰি অসমক আত্মনিৰ্ভৰ কৰাৰ বাবে মােদী চৰকাৰে গ্ৰহণ কৰা পদক্ষেপে আজি বাস্তৱ ৰূপ লাভ কৰিছে-কেন্দ্ৰীয় কেবিনেটে কেন্দ্ৰীয় চৰকাৰৰ কৰ্মচাৰী আৰু পেঞ্চনাৰসকলৰ বাবে ৩ শতাংশ DA আৰু DR বৃদ্ধিত অনুমোদন জনাইছে-এবার শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) বাড়িতে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (NCB)-ভাৰতে 'এক বিলিয়ন' টিকাকৰণৰ গুৰুত্বপূৰ্ণ মাইলৰ খুঁটি অৰ্জন কৰিছে-গুৱাহাটী মহানগৰীত ৪৮ ঘণ্টাৰ বাবে বন্ধ থাকিব পেট্ৰ'ল পাম্প-আজি লক্ষ্মীপূজা

নিউক্লিয়ার সাপ্লায়ার গ্রুপে অন্তর্ভুক্ত হতে চায় নয়াদিল্লি

0

রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের (United Nations Security Council) স্থায়ী সদস্য পদ তো রয়েছেই, নিউক্লিয়ার সাপ্লায়ার গ্রুপেও অন্তর্ভুক্ত হতে চায় নয়াদিল্লি। হোয়াইট হাউসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সঙ্গে বৈঠকে দু’টি ব্যাপারেই মার্কিন সমর্থন নিশ্চিত করলেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন (Joe Biden)। শুক্রবার বাইডেন-মোদীর বৈঠকের পর মার্কিন-ভারত যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, চলতি বছর অগাস্টে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের সভাপতিত্বের প্রশংসা করেছেন প্রেসিডেন্ট। 

রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সংস্কার নিয়ে মোদীর (PM Modi) অবস্থানের সঙ্গে সহমত হয়েছেন জো বাইডেন (Joe Biden)। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী সদস্য পদ পাওয়ার পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। যাঁরা স্থায়ী সদস্যপদের আশা করছে এমন দেশগুলির জন্যেও রাষ্ট্রসঙ্ঘের সংস্কার চেয়েছেন তিনি। 

বর্তমানে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে রয়েছে ৫ স্থায়ী সদস্য এবং ১০ অস্থায়ী সদস্য দেশ। রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় ১০ দেশকে অস্থায়ী পদ দেওয়া হয়। যার মেয়াদ দু’বছর। পাঁচ স্থায়ী সদস্য দেশ হল- রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চিন, ফ্রান্স ও ব্রিটেন। স্থায়ী সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর জন্য ইতিমধ্যেই জোরালো দাবি উঠেছে। গত জুনে নয়াদিল্লি জানিয়েছিল, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সংস্কারকে ইন্টার-গভর্মেন্টাল নেগোসিয়েসনস (Inter-Governmental Negotiations) দিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি করা যাবে না। রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জি-৪ দেশগুলি- ব্রাজিল, জার্মানি, ভারত ও জাপানের সংশোধনী প্রস্তাব গ্রহণ করতে হবে পরের অধিবেশনে। 

নিউক্লিয়ার সরবরাহকারী গোষ্ঠীতেও (NSG) ভারতের অন্তর্ভুক্তি নিয়েও বাইডেনের সমর্থন পেয়েছেন মোদী (PM Modi)। ৪৮ দেশের এই গোষ্ঠী বিশ্বে নিউক্লিয়ার বাণিজ্যের নিয়ন্ত্রক। ২০১৬ সালের মে মাসে সদস্যপদের আবেদন করে ভারত। তার বিরোধিতা করে চিন। তারা যুক্তি দেয়, নিউক্লিয়ার প্রসার বিরোধী চুক্তি যারা স্বাক্ষরিত করেছে সেই সব দেশকেই অনুমতি দেওয়া হোক। উল্লেখ্য, চুক্তিতে সই করেনি ভারত ও পাকিস্তান। 

Leave A Reply

Your email address will not be published.